ডিজিটাল মার্কেটিং কি?

No Comments

ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে বিশদ না জানা থাকলেও, আমাদের সবার কম বেশি ধারণা আছে মার্কেটিং সম্পর্কে। তবে বেশির ভাগ মানুষের ধারনা মার্কেটিং মানে পণ্য বিক্রয়। এই ধারনাটি সম্পূর্ণ সঠিক নয়। পণ্য বিক্রয়কে আপনি মার্কেটিং এর একটি অংশ বলতে পারেন। 

 সাধারণত কোন পণ্য বা সেবার প্রচার ও প্রসার ঘটানোর জন্য যা যা করা হয় তাকে মার্কেটিং বলে। আর এই কাজগুলো অনেকভাবে করা হয়। যেমনঃ ৮০ দশকে মার্কেটিং এর জনপ্রিয় মাধ্যম ছিল পত্রিকা, পরবর্তীতে টেলিভিশন বিজ্ঞাপন তার জায়গা দখল করে নেয়। আর বর্তমানে সব থেকে জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে বিভিন্ন অনলাইন প্লাটফর্ম, তাই এখন সবথেকে বেশি মার্কেটিং হয় বিভিন্ন অনলাইন প্লাটফর্মে । 

ডিজিটাল মার্কেটিং কি?

সহজ কথায় ইন্টারনেট ব্যাবহার করে বিভিন্ন অনলাইন প্লাটফর্মে পণ্য বা সেবার যে প্রচারনা চালানো হয় বা করা হয় তাই ডিজিটাল মার্কেটিং। ডিজিটাল মার্কেটিং ছোট কোন বিষয় নয়, এর পরিধি অনেক বড়। আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন যারা ডিজিটাল মার্কেটিং বলতে শুধুমাত্র ফেসবুক মার্কেটিং কে বোঝেন কিন্তু ফেসবুক মার্কেটিং ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি ছোট অংশ। 

  • সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন (SEO)
  • সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং (SMM)
  • ইমেইল মার্কেটিং
  • অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং
  • কনটেন্ট মার্কেটিং
  • নেটিভ মার্কেটিং
  • পেইড সার্চ বা পে-পার ক্লিক 

উপরের বিষয়গুলি ছাড়াও ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক শাখা-প্রশাখা রয়েছে। এবার সংক্ষেপে উপরের পয়েন্টগুলো নিয়ে আলোচনা করা যাক।

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন 

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন যা সংক্ষেপে SEO নামে বেশি প্রচলিত। আপনার সাইটের বেটার র‍্যাঙ্কিং অর্থাৎ সার্চ ইঞ্জিনে প্রোডাক্ট সার্চ করলে আপনার ওয়েবসাইট যেন আগে দেখায় (যদি সেই ধরনের প্রোডাক্ট আপনার ওয়েবসাইটে থাকে)। এছাড়া আপনার ওয়েবসাইটের অর্গানিক  ভিজিটর বাড়ানো, কিওয়ার্ড র‍্যাঙ্ক করানো সহ সেল বৃদ্ধির জন্য আরও অনেক ধরনের কাজ করা হয় SEO তে। SEO সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে আমাদের  What is SEO ? পোস্টটি পড়ুন।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং

মার্কেটিং এর বর্তমান সময়ে সবথেকে জনপ্রিয় এবং কার্যকরী মাধ্যম হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং। সহজ কথায় সোশ্যাল মিডিয়া (ফেজবুক, ইন্সটাগ্রাম, ইউটিউব, টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপ ইত্যাদি) এর মাধ্যমে পণ্যের প্রচারণা করাই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং। সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে আমাদের স্বল্প খরচে কোথায় বিজ্ঞাপন দিবেন আপনি সেটা জানেন কি?সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং পোস্টটি পড়ুন।

ইমেইল মার্কেটিং

বর্তমান সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় মার্কেটিং এর মাধ্যম হচ্ছে ইমেইল মার্কেটিং। অধিকাংশ মানুষ বর্তমানে স্মার্টফোন ব্যাবহার করে তাই সবার কমপক্ষে ১ টি ভ্যালিড ইমেইল থাকেই। তাই আপনার কাছে পর্যাপ্ত ডেটা থাকলে ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনি সরাসরি আপনার পণ্যের প্রচারনা করতে পারবেন। ইমেইল মার্কেটিং এর সুবিধা হচ্ছে আপনার অফার আপনি আপনার ইচ্ছামত টেমপ্লেট বা অন্য যেকোন ফরমেটে সরাসরি ক্রেতার কাছে পৌঁছে দিতে পারেন এবং ক্রেতা আপনার সব ধরনের অফার সম্পর্কে জানতে পারেন। বাংলাদেশে এর কার্যকারিতা কিছুটা কম তুলনামুলকভাবে তবে প্রতিনিয়ত এর প্রভাব বাড়ছে। ফেইসবুক মার্কেটিং করার সময় যেই কাজ গুলি করা নিষেধ

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি জনপ্রিয় অংশ হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। সহজ কথায় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যেখানে আপনার পণ্য একজন মার্কেটার নির্দিষ্ট একটি কমিশনের বিনিময়ে বিক্রি করে দিবে। বিভিন্ন বড় বড় ওয়েবসাইট এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে প্রচুর পণ্য বিক্রি করে যেমন অ্যামাজন, আলিবাবা, দারাজ। ব্যাবসার প্রচারের জন্য গ্রাফিক্স ডিজাইন কতটা গুরুত্বপূর্ণ?

কনটেন্ট মার্কেটিং

বর্তমান সময়ের সবথেকে কার্যকরী মার্কেটিং এর অন্যতম অংশ হচ্ছে কনটেন্ট মার্কেটিং। আমরা সাধারণত গতানুগতিক সেল পোস্ট পড়তে বিরক্ত বোধ করি, তবে মাঝে মাঝে কিছু জায়গায় আমাদের চোখ আটকে যায় এবং আমরা বিস্তারিত জানতে পোস্টে বা লিংকে ক্লিক করি। সহজ ভাষায় এটাই কনটেন্ট মার্কেটিং অর্থাৎ পণ্যের সাথে প্রাসঙ্গিক বিসয়বস্তু সহ এমনভাবে পণ্যটিকে উপস্থাপন করা হয় যেটা মানুষকে সহজে আকৃষ্ট করে এবং পণ্যটি কিনতে প্রলুব্ধ করে। ওয়েবসাইট এবং সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং দুইটি ক্ষেত্রেই এটি সমান কার্যকর। ফেসবুকে কত টাকার অ্যাডভার্টাইজিং করলে ভাল সেল জেনারেট করা যাবে!

নেটিভ মার্কেটিং

নেটিভ অ্যাডকে আমরা সহজে বোঝার জন্য গিরগিটির সাথে তুলনা করতে পারি। কারণ গিরগিটি যেমন যখন যে জিনিসের উপরে বসে তখন সেই জিনিসের বর্ণ ধারন করে তেমনি নেটিভ অ্যাড দেখলে আপনি চট বুঝতে পারবেন না এটি অ্যাড নাকি কন্টেন্টের অংশ। অর্থাৎ কন্টেন্টের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ অ্যাডগুলি হচ্ছে নেটিভ অ্যাড, আর এই অ্যাড এর ফিডব্যাক অনেক বেশি কার্যকরী হওয়ায় এখন অনেকে নেটিভ অ্যাড এর দিকে ঝুকছেন। ফেসবুক পেজে Coupon ব্যবহার কতটা নিরাপদ!

পেইড সার্চ বা পে-পার ক্লিক

এই পদ্ধতি তুলনামূলকভাবে ব্যায়বহুল। বিভিন্ন বিজ্ঞাপনের প্লাটফর্ম বা ওয়েবসাইটে আপনার অ্যাড শো করানো এবং অ্যাড এর উপরে ক্লিক পড়লে প্লাটফর্মের মালিকের নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ প্রাপ্তি এই প্রসেসটি হচ্ছে পে পার ক্লিক এবং এই প্লাটফর্ম যখন কোন সার্চ ইঞ্জিন হয় এবং আপনি আপনার সাইট রিকমেন্ড করার জন্য এবং সিরিয়ালি আগে থাকার জন্য সার্চ ইঞ্জিনকে অর্থ দেন তখন সেটাকে বলে পেইড সার্চ। ফেসবুকে সেল করার গ্যারেন্টেড উপায়

এতখন আপনি এককথায় ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন অংশ সম্পর্কে জানলেন। আপনার ব্যাবসাকে সফল করার জন্য এর পাশাপাশি আপনাকে আরও বেশকিছু বিষয়ে ধারণা রাখতে হবে। আমরা ধীরে ধীরে সেগুলো নিয়েও পোস্ট করবো।

পড়ুনঃ ফেসবুক মার্কেটিং আপনার যা জানা উচিত

 

About us and this blog

We are a digital marketing company with a focus on helping our customers achieve great results across several key areas.ABS

Request a free quote

We offer professional SEO services that help websites increase their organic search score drastically in order to compete for the highest rankings even when it comes to highly competitive keywords.

Subscribe to our newsletter!

There is no form with title: "SEOWP: MailChimp Subscribe Form – Vertical". Select a new form title if you rename it.

More from our blog

See all posts

Leave a Comment

7 + four =